আজঃ শনি, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩

দৈনন্দিন জীবনের ১১০টি টিপস  বা লাইফ হ্যাকস

লিখেছেনঃ জিসান আহমেদ পঠিত 229 বার
দৈনন্দিন জীবনের ১১০টি টিপস  বা লাইফ হ্যাকস
দৈনন্দিন জীবনের ১১০টি টিপস  বা লাইফ হ্যাকস


দৈনন্দিন জীবনে জানার আছে অনেক কিছু। অনেক সমস্যার আছে সহজ থেকে সহজতর সমাধান। আজ এমনই কিছু ব্যাপার জেনে নিন।

১): ঘুম ঘুম ভাব দুর করতে , কিছুক্ষন নিঃশ্বাস চেপে রাখুন এরপর ছেড়ে দিন। একইভাবে কয়েকবার করুন।

২): বমি বমি ভাব হলে , বৃদ্ধাঙগুলী মুঠোর ভেতর শক্ত করে ধরে রাখুন। বমি বমি ভাব কেটে যাবে।

৩): মাইগ্রেনের অসহ্য ব্যাথা হলে বরফের মাঝে হাত রেখে , হাতের মুঠো খুলতে ও বন্ধ করতে থাকুন।

৪): পড়া মনে রাখতে রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে তা বেশি করে পড়ে রাখুন। সকালে পড়া ভালো মনে থাকবে।

৫): গলা খুশখুশ করলে, ভালো মতো কানের পেছন দিকটায় ঘষুন। খুশখুশ ভাব কেটে যাবে।

৬): কোনভাবেই ঘুম না আসলে এক মিনিট অনবরত চোখের পলক ফেলুন। এতে চোখ ক্লান্ত হবে ফলে তাড়াতাড়ি ঘুম আসবে।

৭): দাঁতে প্রচন্ড ব্যাথা হলে একটি বরফের টুকরো হাতের তর্জনী আর বৃদ্ধাঙ্গুলী দিয়ে চেপে ধরুন ব্যাথা আস্তে আস্তে কমে আসবে।

৮): নাক বন্ধ থাকলে রাতে ঘুমানোর আগে বিছানার আশেপাশে একটি পেঁয়াজ রেখে দিন। আরাম পাবেন।

৯): কোন প্রয়োজনে হাঁচি রোধ করতে চাইলে , জিহবা দিয়ে মুখের উপরের অংশে চাপ দিন। হাঁচি আর আসবে না।

১০): কোনভাবেই সিরিয়াস মূহুর্তেও হাসি থামাতে পারছেন না? নিজের গায়ে নিজে চিমটি কাটুন। হাসি থেমে যাবে।

১১): মুখে দুর্গন্ধ করছে কিন্তু ব্রাশ করার সময় নেই?ঘর থেকেবের হওয়ার সময় মুখে সামান্য পুদিনাপাতা পুরে চিবাতে পারেন।

১২): কোন বোতলের মুখ শক্ত হয়ে লেগে গেলে সামান্য গরম পানিতে চুবিয়ে রাখলেই খুলে আসবে।

১৩): ফোন চার্জ দেওয়ার সময় এয়ারপ্লেন মোডে দিয়ে চার্জ দিন। ফোন অলওপ সময়েই চার্জ হয়ে যাবে।

১৪): ফোন পানিতে পড়ে গেলে চালের পাত্রে রেখে দিন। চাল ফোনের সব পানি শুষে নেবে।

১৫): আপনার ডাস্টবিনের নিচের দিকে একটি খবরের কাগজ বিছিয়ে রাখুন। এই কাগজ ফলের রস, খাবারের রস শুষে নেবে ফলে ডাস্টবিন ভিজবে না।

১৬): পুরাতন খাবার গরম করার সময় খাবারের মাঝখানটায় গোল করে সার্কেল কেটে দিন। তাড়াতাড়ি গরম হবে।

১৭): জুস বা পানি দ্রুত ঠান্ডা করতে বোতল একটি টিস্যূতে মুড়ে ফ্রিজে রাখুন তাড়াতাড়ি ঠান্ডা হবে।

১৮): অনেক সময় ডাল, ভাতের মাড় ইত্যাদি ফুটে চুলোতে পড়ে যায়। ঠেকাতে একটি কাঠের চামচ পাত্রতে রেখে দিন। চুলোতে আর পড়বেনা।

১৯:মোমবাতি ফ্রিজে রাখুন অনেকদিন ঠিকবে।

২০): কলার খোসা তাড়াতাড়ি ছাড়াতে কলার শেষপ্রান্তে চাপ দিন।

২১): ডিম সিদ্ধ করার সময় এক চা চামচ বেকিং সোডা পানিতে দিয়ে দিন। ডিম তাড়াতাড়ি সিদ্ধ হবে।

২২): কাঁচের জানালা ভেজা পত্রিকা দিযে মুছে এরপর শুকনো একটি পত্রিকা দিয়ে মুছে নিলে চকচক করবে।

২৩): ফটো তোলার সময় সবুজ রঙ পড়ে থাকলে আপনার আকৃতি ছোট দেখাবে। আর হলুদ রঙ পড়লে আকৃতি বড় দেখাবে।

২৪): আপনি যদি শ্যামলা বর্ণের হোন তবে পিংক ব্লাশার এড়িয়ে চলুন।

২৫): ফটো তোলার সময় চোখ একটু ছোট করে হাসুন এতে আপনার হাসি ন্যাচারাল বা রিয়েল বলে মনে হবে।

২৬): এলার্ম দিতে হবে ? অথচ বেশি

সাউন্ড চাইছেন না? আপনার ফোন একটি গ্লাসের ভেতর রেখে দিন। আওয়াজ সহনীয় থাকবে।

২৭): কারো সাথে কথা বলার সময় তার পায়ের দিকে লক্ষ্য করুন পা আপনার থেকে দুরে থাকলে বা অন্যদিকে ঘুরানো থাকলে বুঝতে হবে ঐ ব্যাক্তি কথা শেষ করে দিতে আগ্রহী।

২৮): পেঁয়াজ কাটার আগে দু তিন মিনিট ঠান্ডা পানিতে ভিজিয়ে রাখুন চোখে পানি আসবে না।

২৯): ব্যাটারি ভালো কি না খারাপ তা চেক করতে তা ছয় ” দুরে ছুড়ে ফেলুন। ব্যাটারি মাত্র একবার বাউন্স করলে তা ভালো, কিন্তু যদি দু তিনবারের বেশি বাউন্স করে দুরে সরে যায় তবে ব্যাটারি টা শেষ হওয়ার পথে।

৩০): কাপড়ের ড্রায়ারে একটি খালি সাবানের মোড়ক রেখে দিতে পারেন। সুঘ্রাণ পাবেন।

৩১): ফোনে গেম খেলার সময় ফোন ফ্লাইট মোডে দিয়ে রাখলে নানান ধরনের এড আর স্ক্রিনে আসবে না।

৩২): চা কপি বা সোডা জাতীয় পানি খাওয়া পর প্রতিবার একটু করে পানি পান করুন এতে দাঁত সাদা থাকবে।

৩৩): রঙ করার সময় রঙের পাত্রের মুখে একটি রাবার ব্যান্ড আটকে রাখুন ব্রাশে জমে থাকা অতিরিক্ত রঙ এই ব্রাশের গায়ে মুছে নিন রঙ ছড়াবে না।

৩৪): ফোনের গ্লাসে স্ক্র্যাচ পড়লে সামান্য টুথপেস্ট দিয়ে গ্লাস মুছে নিন স্ক্র্যাচ অনেকটাই সহনীয় হয়ে আসবে।

৩৫): পুরাতন ফার্নিচারের চমক পলিশ ছাড়াই ফিরিয়ে আনতে ব্যবহার করুন মেয়োনিজ।

৩৬): রোদে পোড়া ত্বকে ঠিক করবে ব্যবহৃত টি ব্যাগ।

৩৭): একসাথে ওভেনে দুটি পাত্র রাখতে হবে? অথচ জায়গা নেই? এক কাজ করুন একটি পাত্র ওভেনের ট্রের উপর রাখুন। অন্যপাশে একটি মগ রেখে অন্য একটি পাত্র মগের উপর রেখে দিন। লেভেল উপর নিচ হওয়ার ফলে দুটি পাত্রই একসাথে জায়গা হবে।

৩৮:স্ট্রবেরীর উপরের অংশ সহজে তুলতে মাঝখান দিয়ে একটি স্ট্র ঢুকিয়ে দিন। সহজে উপরের অংশ উঠে আসবে।

৩৯): চিনির পাত্রে পিঁপড়া রোধ করতে কয়েকটি লবঙ্গ চিনির পাত্রে রেখে দিন। পিঁপড়া আসবে না আর।

৪০): লবন ঝরঝরে লাখতে কয়েক দানা চাল লবনের পাত্রে রেখে দিন। লবন ঝরঝরে ও শুকনো থাকবে।

৪১): অনেকগুলো চাবির মধ্যে প্রতিটা আলাদা করতে ভিন্ন ভিন্ন রঙের নেল পলিশ দিয়ে রঙ করে নিন।

৪২): চুল স্ট্রেট করার সময় হালকা একটু তেল হাতে লাগিয়ে চুলে লাগিয়ে নিন চুল চকচক করবে।

৪৩): জীবনে সেরা পুষ্টিকর কিছু খাবার হচ্ছে কলা কাঠবাদাম , দুধ ও মধু।

৪৫): জাংক ফুড যতই মজার হোক এগুলোর মতো ক্ষতিকর আর কিছু নেই। সফট ড্রিংক ও খুব খারাপ প্রভাব ফেলে আপনার উপর।

৪৬): বয়স ধরে রাখতে মাছ, বাদাম আর স্ট্রবেরী বেশি করে খান।

৪৭): ক্যান্সার রোগীদের জন্য ফুলকপি, ব্রকলি, লেবু ও স্ট্রবেরী খুব ভালো খাবার।

৪৮): দাঁত ভালো রাখতে গাজর, পেঁয়াজ, দুগ্ধজাত খাবার ইত্যাদির চেয়ে সেরা আর কিছু নেই।

৪৯): হাত থেকে রসুনের বাজে গন্ধ দুর করতে আপনার হাত কিছুক্ষণ সে্টেনলেস সিঙ্কে ঘষুন হাত থেকে রসুনের গন্ধ দুর হয়ে যাবে।

৫০): পনেরো মিনিট হাসি দু ঘন্টা ঘুমের চেয়ে ভালো।

৫১): সকালের নাস্তায় একটি কলা খান। এটি সারাদিন আপনাকে হাসিখুশি রাখবে। কলা টেনশন কমাতে দারুণ কার্যকর।

৫২): ফ্রিজ থেকে পিজ্জা বের করে তা ওভেনে ছাড়ার আগেই কেটে নিন। শক্ত পিজ্জা কাটা নরম পিজ্জা কাটার চেয়ে সহজ।

৫৩): জীবনে কোন কঠিন মূহুর্ত পার করছেন? তবে নিজেকে একজন আশি বছরের বৃদ্ধ হিসেবে কল্পনা করুন। যে জীবনে কোন কঠিন কিছু না করায় আফসোসে কাতর! এবার চোখ খুলুন। আপনার বয়স এখন আপনাকে শক্তি যোগাবে। সত্যি এই পদ্ধতি খুব কার্যকর একবার চেষ্টা করে দেখতে পারেন।

৫৪): কেক সাজাতে ক্যান্ডি গুড়া করে ব্যবহার করুন। কেকের উপর মুক্তোর মতো ছড়ানো রঙ বেরঙের ক্যান্ডি দেখতে খুব ভালো লাগবে।

৫৫): শেভিং ক্রিম শেষ হয়ে গেলে , এর বদলে অলিভ অয়েল ব্যবহার করতে পারেন।

৫৬):  ঘরে বেকারির মতো সুগন্ধ পেতে এক টুকরো দারচিনি ভেনিলা এসেন্স এক ফোঁটা ও এক কাপ পানি এক সাথে জ্বাল দিয়ে ঘরের কোণে একটি পাত্রে রেখে দিন।

৫৭):  জানেন কি জীবনে দুইটা বিশ্বাসী বন্ধুই যথেষ্ট ! বেশি সংখ্যক ফেইক বন্ধু আপনার জীবনে একাকিত্ব বাড়িয়ে দিতে পারে।

৫৮:) কোথাও ভ্রমণে বের হওয়ার আগে আপনার লাগেজের একটি ফটো তুলে নিন। তাহলে লাগেজ হারালে খুঁজে পেতে সহজ হবে।

৫৯:) খুব চিন্তায় আছেন তখন হাস্যরস আপনার ডিপ্রেশন অনেকটাই কমাবে। কিন্তু মখ গম্ভীর করে রাখলে টেনশন দিগুণ হারে বাড়বে।

৬০:) কোথাও ঘুরতে যাওয়ার আগে একটি কয়েন আইসট্রেতে রেতে রেখে যান। ফিরে এসে যদি দেখেন কয়েন বরফের মধ্যে পড়ে আছে তবে বুঝে নিতেহবে আপনার ফ্রিজ সর্বদা সচল ছিলো না। খাবারগুলো ভালো আছে কি না চেক করে নিন।

৬১:) আপনার কফিতে ক্রিম যোগ করলে এটি তুলনামূলক ২০% সময় গরম থাকবে।

৬২): কোন কিছু ফটোকপি করার সময় হলুদ রঙা মার্কার দিয লাইনগুলো ভরে দিন। এতে ফটোকপির একটা ডাবল ছায়া আছে যা কাগজে ভেসে উঠে না।

৬৩): হার্ট এ্যাটাকের ঝুকিঁ কমায় পোষা বিড়াল! জি হ্যা, সম্প্রতি এক গবেষণায় এমন তথ্যই বের হয়ে এসেছে।

৬৪): টিফিন বক্সে বা ফ্রিজে স্যান্ডউইচ রাখার আগে একটি টিস্যূ পেপার দিয়ে মুড়ে রাখুন এতে স্যান্ডউইচ ফ্রেশ থাকবে।

৬৫): আপনার এ্যালুমিনিয়ামের পাতএতেপুরাতন ও মলিন লাগছে? এক কাজ করুন উতে কয়েকটি আপেলের খোসা জ্বাল দিন। পাত্র নতুনের মতো হয়ে যাবে। আর আপনি দারুণ একটা সুঘ্রাণ আপনার ঘরে পাবেন।

৬৬): নরম ও মসৃন বাটার চাইছেন? এক কাজ করুন সামান্য গরম পানি বাটারে ছেড়ে দিন বাটার নরম তুলতুলে হয়ে যাবে।

৬৭): কলা অনেক দিন ভালো রাখতে পত্রিকা দিয়ে মুড়ে রাখুন।

৬৮): ব্লেন্ডার পরিষ্কার করতে এক কাপ পানি ও দুই চামচ বেকিং সোডা ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করুন। ব্লেন্ডার নতুনের মতো দেখাবে।

৬৯): ঘরে মেয়োনেজ না থাকলে একটি ডিমের সাথে ১৫০এম এল অলিভ অয়েল মিশিয়ে ব্লেন্ড করুন। এটি মেয়োনিজের কাজ করবে।

৭০): ডিম ভালো কি না পরীক্ষা করতে একটি পাত্রে পানি নিয়ে ডিমগুলেো ডুবিয়ে দিন। যে ডিমগুলো ভেসে থাকবে তা ভালো আর যেগুলো ডুবে যাবে বুঝে নিতে হবে সগুলো ভালো ডিম নয়।

৭১: কার্পেট , বাসন , সিঙ্ক, ইত্যাদি পরিষ্কার করতে বেকিং সোডা অন্যতম!

৭২): তরমুজের স্বাদ দিগুণ মিষ্টি করে তুলতে তরমুজের উপর সামান্য লবন ছিটিয়ে দিন।

৭৩): প্রতিদিন অন্তত দশ মিনিট গান শোনলে এটি আপনাকে মানসিক ভাবে প্রফুল্ল রাখবে। রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে নিজের প্রিয় গান শোনলে ঘুম ভালো হয়।

৭৪): ডানপাশ হয়ে শুলে তুলনামূলক তাড়াতাড়ি ঘুম চলে আসে।

৭৫): কাজে যাওয়ার আগে একটি কমলা খেতে পারেন। এতে আপনি সহজে ক্লান্ত হবেন না।

৭৬): ঘন ঘন ক্ষুদা পাওয়া ডি-হাইড্রেটেশন বা পানি স্বল্পতার লক্ষন , এমন হলে সবার আগে এক গ্লাস পানি খেয়ে নিন।

৭৭): প্রিনগলস চিপসের বোতল কে এয়ার টাইট পাত্র হিসেবে ব্যবহার করুন।

৭৮): তেলের গন্ধ দুর করতে এতে সামান্য আদা ভেজে নিন। গন্ধ আর থাকবে না।

৭৯): আপনার সন্তানের হাতে ফোন দেওয়ার আগে ফ্লাইট মোড অন করে দিন, এতে কোন ধরনের অনিরাপদ ওয়েবসাইটে সে চলে যাবে না।

৮০): পপকর্নে যেকোন ফল বা সবজীর চেয়ে বেশি পরিমাণ এ্যান্টি অক্সিডিয়েন্ট আছে।

৮১): পরীক্ষার আগে আপনার যাবতীয় ভয় একটি কাগজে লিখে ছিড়ে ফেলুন। এতে আপনার মনে উপস্থিত ভয় কেটে যাবে ফলে পরীক্ষা ভালো হবে।

৮১): কখনো পেট ভরে খাবেন না। ক্ষিদা মিটে যাওয়ার সাথে সাথেই খাওয়া বন্ধ করে দিন।

৮২): আলুর চিপস নরমহয়ে গেলে তা দু মিটিটের জন্য মাইক্রোওয়েভ ওভেনে রেখে দিন। আবার কড়কড়ে হয়ে যাবে।

৮৩): কোন কিছু জোরে উচ্চস্বরে পড়লে তা বার বার পড়তে হবে না এমনিতেই মনে থাকবে।

৮৪): ফ্যাট পুড়াতে চান? প্রতিদিন কাজে যাওয়র আগে এক কাপ কফি খেয়ে নিন। ফ্যাট সহজে পুড়বে।

৮৫): ঠান্ডা পানি শরীরের মেটাবলিজম বাড়ায় ফলে আপনার মেদ কমে যায়। মেদ কমাতে খেতে পারেন ঠান্ডা পানি।

৮৬): আপনার চুল কতটা সাস্থ্যকর তা পরীক্ষা করতে একটি পাত্রে কিছু চুল ছেড়ে এতে পানি ঢালুন। চুলগুলো ডুবে গেলে বুঝে নিতে হবে আপনার চুল রুক্ষ আর ভেসে উঠলে বুঝে নিন আপনার চুলের স্বাস্থ্য ঠিক আছে।

৮৭): গলার ব্যাথা কমাতে শশা খেতে পারেন শশা গলার ব্যাথা কমায়।

৮৮): সকাল নয়টার আগের পড়াগুলো মানব মস্তিষ্ক দ্রুত ভুলে যায়।

৮৯): খুব ঝাল কোন কিছু খেয়ে ফেললে পানির বদলে চিনি খান। সহজে ঝাল কেটে যাবে।

৯০:ঘরে সিগারেটের ধোঁয়া বা কয়েলের ধোঁয়া ও গন্ধ সহজে দুর করতে ঘরের কোণায় একটি ভেজা টাওয়াল রেখে দিন। ধোঁয়া সহজে কেটে যাবে।

৯১): নরম ত্বক পেতে আপনার শাওয়ারের পানিতে গোলাপ জল ও নারিকেল তেল যোগ করুন।

৯২): রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে ফোন ব্যবহার অভ্যাস বাদ দিন। সাধারনত অনিদ্রার সমস্যা ফোনের কারণেই হয়।

৯৩): সপ্তাহে অন্তত তিন দিন বিশ মিনিট করে ব্যায়াম করুন। এতে পুরো সপ্তাহ আপনি হাসিখুশি থাকবেন।

৯৪): লাগেজে কাপড় ভরে নেওয়ার আগে কয়েকটি খবরের কাগজ লাগেজে বিছিয়ে নিন। এতে আপনার কাপড়ে দুর্গন্ধ হবে না।

৯৫): ধূমপান ত্যাগ করতে চাইছেন ? অথচ পুরাতন অভ্যাস ছাড়তে পারছেন না? এক কাজ করুন। বাজার থেকে সবচেয়ে কমদামি ও বাজে সিগারেট কিনে আনুন। একবার দুইবার খাওয়া পর আর খেতে ইচ্ছা করবে না। ফলে এই বদ অভ্যাস সহজেই ত্যাগ করতে সক্ষম হবেন আপনি।

৯৬): মাথা ঘোরছে বা ক্লান্তি অনুভব করছেন? হাতের কবজী দু তিন মিনিট ম্যাসেজ করুন আরাম পাবেন।

৯৭): কেউ যাতে আপনার মেসেজগুলোর স্ক্রিনশট না নিতে পারে সেজন্য তাদের বয়েস মেসেজ পাঠাতে পারেন।

৯৮): মাথাব্যাথা শুরু

হলে সবার আগে এক গ্লাস পানি খেয়ে নিন।

৯৯): আপনার জুতোর বাক্সে , ড্রায়ারে , বা জুয়েলারি বক্সে এক প্যাকেট সিলিকা জেল রেখে দিন কোন জিনিস কখনোই নষ্ট হবে না।

১০০): গাড়িতে দুর্গন্ধ দুর করতে এক টুকরো লেবু রেখে দিন। এছাড়া ফ্রিজের বাজে গন্ধ ও দুর করবে লেবু।

১০১): ডিম অনেকদিন পর্যন্ত ভালো রাখতে ডিমের গায়ে সামান্য তেল মেখে নিন। এরপর দেখুন অনেকদিন পর্যন্ত ডিম ভালো থাকবে।

১০২): কমলার খোসা দিয়ে কাচেঁর বাসন ঘষলে বাসন চকচক করবে!

১০৩): বাসন ধোঁয়ার স্পন্জ অনেক দিন ভালো রাখতে তা খোলার আগে কয়েকদিন ফ্রিজে রেখে দিন কখনো নষ্ট হবে না।

১০৪): ভাত রান্না করার সময় মাড় ফেলে না দিয়ে তা ত্বকে লাগিয়ে নিন। এটি এ্যান্টি এইজিং হিসেবে কাজ করবে।

১০৫:কম্পিউটারের কীবোর্ড পরিষ্কার করতে হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার করুন।

১০৬:): দাঁত সাদা করতে ডার্ক চকোলেট ও নারিকেল তেল ভেলকীর মতো কাজ করে!

১০৭): কোন রেস্টুরেন্টের মেন্যু কার্ড টাচ করা পর অবশ্যই হাত ধুয়ে নিন। কারণ একটি মেন্যূ কার্ডে অজস্র হাতের জীবাণু লেগে থাকে।

১০৮): ভেঙ্গে যাওয়া সিডি দিয়ে তৈরী করুন দারুণ সব ডোরবেল।

১০৯): সর্বশে্রেষ্ট চোখের ব্যায়াম হল বারবার চোখ খুলা ও বন্ধ করা।

১১০): ব্রণের দাগ দুর করতে মুখে টুথপেস্ট ব্যবহার করুন।

দেখলেন তো জীবনে অনেক জটিল সমস্যাগুলোর রয়েছে কত সহজ সমাধান! আশা করি ভিন্নধর্মী এই টিপসগুলো আপনার কিছুটা হলেও কাজে আসবে। আগে থেকে জানা থাকলে তো দারুুণ আর জানা না থাকলে জেনে নিতে পারেন এখনই! ইংরেজীতে এই ধরনের টিপস লাইফ হ্যাকস বলে পরিচিত। আপনিও আপনার দৈনন্দিন জীবনে কাজে লাগাতে পারেন অল্পস্বল্প এই টিপসগুলো।